বাংলাদেশ ক্রিকেট

আইপিএলে মুশফিকুর রহিমকে রয়েল চ্যালেঞ্জার দলে নিতে অনুরোধ করল ভারতীয় মিডিয়া

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের এ বছরের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। দুর্দান্ত এই ব্যাটিং এরপরেও সুযোগ পাইনি ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আইপিএলে। ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আইপিএলের নিলামে প্রাথমিকভাবে নিজের নাম না লেখানো মুশফিক পরে ফ্র্যাঞ্চাইজিদের অনুরোধে নিলাম না লেখালেও তাকে দলে নিতে আগ্রহ দেখায়নি কেউই। তবে নিলামের পরেও নিজেরদের সেরা কম্বিনেশ তৈরী করতে মুশফিককে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুর দলে নেওয়ার সম্ভাবনা দেখছে ভারতীয় জনপ্রিয় ক্রিকেট পোর্টাল ক্রিকট্রেকার।

এদিকে বরাবরের মতো এবারও তারকাবহুল দল নিয়েই মাঠে নামবে ব্যাঙ্গালুরু। তবে ভারতীয় জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ‘ক্রিকট্রেকার’ মনে করে তাদের দলে সঠিক কম্বিনেশন পেতে অবিক্রীত কিছু খেলোয়াড় তারা নিতে পারে নিলাম থেকে।

এ জন্য ৫ সদস্যের একটি তালিকা প্রকাশ করেছে ক্রিকট্রেকার। যেখানে তাদের প্রথম পছন্দ বাংলাদেশের মুশফিকুর রহিম। মুশফিককে দলে নেওয়ার কারণ হিসেবে ক্রিকট্রেকার উল্লেখ করে, শারীরিকভাবে ছোট হলেও মুশফিকুর রহিম একজন প্রভাবশালী খেলোয়াড়।

বাংলাদেশের এই অভিজ্ঞ ক্রিকেটার যে কোনও পক্ষে থাকা দুর্দান্ত। নিলামে বেশিরভাগ দলই তাদের উইকেটরক্ষকের বিকল্প বাছাই হিসেবে তাকে চেয়েছিলেন, যদিও তিনি আবারও অবিক্রিত রয়ে গেছেন।

তাছাড়া আরসিবির পক্ষে তিনি দুর্দান্ত পছন্দ হতে পারতেন। রয়্যাল চ্যালেঞ্জারস বেঙ্গালুরু চার বা পাঁচ নম্বরে মুশফিকুর রহিমকে ব্যাটিং করাতে পারত এবং সময়সাপেক্ষে সে উইকেট ধরে রাখতে পারত।

এদিকে ক্রিকট্রেকারের মতে, আরসিবিতে বিরাট কোহলি এবং অ্যারন ফিঞ্চ ইনিংস শুরু করতেন। এবি ডি ভিলিয়ার্স তিন নম্বরে আসতেন। তারপরে, তারা দলে আরও ভারসাম্য যোগ করতে এবং মিডল অর্ডারকে আরও শক্তিশালী করতে মিডল অর্ডারে রহিমকে স্লট করতে পারত।

এরপর চারে তখন শিবাম দুবের মতো কেউ তখন দুর্দান্ত পছন্দ হত। প্রয়োজনে তাকে তার শট খেলার স্বাধীনতা দেওয়া যেতে পারে। এটি আরসিবি-র পক্ষে খুব উপকারী হতে পারে।

এদিকে ক্রিকট্রেকার অবিক্রিতদের মধ্যে নিতে পারে এমন চার ক্রিকেটার হলেন, এন্জেলো ম্যাথিউস, এন্ডিলে ফেকলুকওয়ায়ো রিকি ভুই ও জি পেরিইসামিয়া।