বাংলাদেশ ক্রিকেট

৪৭০ রান করে প্রথম স্থানে মুশফিকুর রহিম, ৪৫৮ রান করে দ্বিতীয় স্থানে রাইলি রুশো

বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করে দলকে ফাইনালে নিয়ে গিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। অধিনায়কত্বের পাশাপাশি টুর্ণামেন্টে ব্যাট হাতে চমৎকার পারফরম্যান্স করেছেন মুশফিকুর রহিম। গতকাল তিনি রাইলি রুশো কে পিছনে ফেলে এবারের আসরে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহের তালিকায় উঠে গেছেন।

তবে দুইবার সেঞ্চুরি দ্বারপ্রান্তে গিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। দুই দুইবার নব্বইয়ের ঘরে গিয়ে সেঞ্চুরি থেকে বঞ্চিত হয়েছেন তিনি। মিরপুরে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স এর বিপক্ষে করেছিলেন ৯৬ রান।

আর রংপুরের বিপক্ষে ৯৮ রান করে অপরাজিত ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের সর্বকালের সেরা উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান। তাইতো বিপিএলে রান সংগ্রহের তালিকায় সবার উপরে রয়েছেন মুশফিকুর রহিম।

বিপিএলে দারুণ ফর্মে রয়েছে বাংলাদেশের জাতীয় দলের কয়েকজন ক্রিকেটার। যার মধ্যে মুশফিকুর রহিম তামিম ইকবাল এবং ইমরুল কায়েস, লিটন দাস এবং নাঈম শেখ অন্যতম।

বিপিএলে এখন পর্যন্ত ১৩ ম্যাচে ৪৭০ রান করে রান সংগ্রহের তালিকায় প্রথম স্থানে মুশফিকুর রহিম। তবে এই মুশফিক একটু আলাদা। তার কারণটা স্ট্রাইক রেটে বলে দিচ্ছে এই মুহূর্তে তিনি বাংলাদেশের সবচেয়ে বিধ্বংসী টি টোয়েন্টি ব্যাটসম্যান।

৭৮.৩৩ গড়ে ১৪৭.৩৩ স্ট্রাইক রেটে এবারের বিপিএলে চারটি হাফ সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে এবারের বিপিএলে সর্বোচ্চ স্ট্রাইক রেট মুশফিকুর রহিমের (মিনিমাম ২০০+ রান)।

মুশফিকুর রহিম ছাড়াও বঙ্গবন্ধু বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন জাতীয় দলের ৩ ওপেনার ব্যাটসম্যান লিটন দাস, ইমরুল কায়েস এবং তামিম ইকবাল।

এখন পর্যন্ত বিপিএলে ষষ্ঠ সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক লিটন দাস। অন্যদিকে এবারের বিপিএলে চতুর্থ এবং বাংলাদেশ ক্রিকেটারদের মধ্যে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক ইমরুল কায়েস। রাজশাহীর ব্যাটসম্যান লিটন দাস ১৩ ম্যাচে ৪২৪ রান করেছেন। ১৩৯.০১ স্ট্রাইক রেটে লিটন দাসের ব্যাটিং গড় ৩৫.৩৩ রান‌।

চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্সের ব্যাটসম্যান ইমরুল কায়েস এখন পর্যন্ত ১২ ম্যাচে ৪৩৭ রান করেছেন। ১৩৩.৬৩ স্ট্রাইক রেটে ইমরুল কায়েসের ব্যাটিং গড় ৫৪.৬২ রান‌। বিপিএলে এখন পর্যন্ত চারটি হাফ সেঞ্চুরি রয়েছে তার। এক ইনিংসে সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত স্কোর অপরাজিত ৬৭ রান।

টুর্ণামেন্টে ৩৬ টি চার এবং ২২ ছক্কা হাঁকিয়েছেন ইমরুল কায়েস। ছক্কা হিসেবে যা বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ।

বিপিএলে বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের মধ্যে চতুর্থ সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক তামিম ইকবাল। ‌১২ ইনিংসে ৩৯.৬০ গড়ে ৩৯৬ রান সংগ্রহ করেছেন তামিম ইকবাল। টুর্ণামেন্টে ৩৬ টি চার এবং ১১ ছক্কা হাঁকিয়েছেন তিনি।

এবার টুর্নামেন্টের দ্বিতীয় সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহক খুলনা টাইগার টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান দক্ষিণ আফ্রিকান রাইলি রুশো। ১৩ ম্যাচে ৪৫৮ রান করেছেন তিনি। এছাড়াও তৃতীয় নম্বরে রয়েছে কুমিল্লার অধিনায়ক ডেভিড মালান ৪৪৪ রান করে তৃতীয় স্থানে রয়েছেন তিনি।